২ মাস আগে দুই মহিলাকে গণধর্ষণ মণিপুরে, ভিডিও ভাইরাল হতেই মোদিকে নিশানা বিরোধীদের

মণিপুর কাণ্ডে ঝড় তুলে দিল গত ৪ মার্চ মণিপুরের মাটিতে হয়ে যাওয়া এক গণধর্ষণের ঘটনা। হঠাৎ-ই এক ভিডিও ভাইরাল হয়, যেখানে নজরে আসে মাঠের মধ্যে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করা হচ্ছে বিবস্ত্র দুই মহিলাকে। এখানেই শেষ নয়, এরপর তাঁদের রাস্তা দিয়ে হাঁটিয়ে নিয়ে যাচ্ছে একদল পুরুষ। তার মধ্যেও ওই দুই মহিলার ওপর চলে ক্রমাগত হেনস্থা ও শারীরিক নির্যাতন। অশান্ত মণিপুরের এমনই এক ভয়াবহ ভিডিও ভাইরাল হতেই দেশ জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে। ঘটনা যে সত্যি,তা বিবৃতি দিয়ে স্বীকার করে নিয়েছেন মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিং। একই সঙ্গে দোষীদের কঠোর শাস্তির আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি।
মুখ্যমন্ত্রী যাই বলুন না কেন মণিপুরের কাংগপোকপি জেলায় গত ৪ মার্চ এই ঘটনা ঘটে। রাজধানী ইম্ফল থেকে ওই এলাকাটি প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দূরে। আদিবাসীদের সংগঠন আইটিএলএফ-এর অভিযোগ,বিবস্ত্র করে রাস্তায় ঘোরানোর আগে একটি মাঠের মধ্যে গণধর্ষণ করা হয় ওই দুই নির্যাতিতাকে। এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরই প্রশ্ন উঠেছে,ঘটনার পর প্রায় দু মাস কেটে গেলেও কেন অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করতে পারল না পুলিশ। এদিকে ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় দুই নির্যাতিতার পরিচয়ও ফাঁস হয়ে গিয়েছে।
গত প্রায় দু মাস ধরে গোষ্ঠী সংঘর্ষে আগুন জ্বলছে মণিপুরে। মেইতেইদের তফশিলি উপজাতির স্বীকৃতি দেওয়ার দাবিকে ঘিরেই অশান্তির সূত্রপাত। যে দিন এই দুই মহিলাকে নির্যাতন করা হয় বলে অভিযোগ,তার ঠিক একদিন আগে আদিবাসী মেইতেই সম্প্রদায়ের সঙ্গে পাহাড়ি অঞ্চলে বসবাসকারী কুকিদের সংঘর্ষ শুরু হয়। এই ঘটনা তারই জেরে কি না তা নিয়ে নিশ্চিত ভাবে বলতে পারছেন না কেউই।
এদিকে মণিপুর পুলিশের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে,ইতিমধ্যেই অপহরণ, গণধর্ষণ এবং খুনের মামলা দায়ের করে অভিযুক্তদের সন্ধান চলছে। মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী বীরেন সিং ট্যুইট করে দাবি করেন, ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি তাঁকে ফোন করেছিলেন। দ্রুত অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হবে বলেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেছেন মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী। স্মৃতি ইরানি নিজেও টুইট করে ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন। এদিকে এমনিতেই গত দু মাস ধরে মণিপুর ইস্যুতে চাপে রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার ও বিজেপি নেতৃত্ব। নতুন এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর সেই অস্বস্তি যে আরও বাড়ল তাতে সন্দেহ নেই। এই ঘটনার উল্লেখ করে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে বিঁধে টুইট করেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধি। টুইটারে ঘটনার নিন্দা করে তিনি লেখেন,‘কেন্দ্রীয় সরকার, প্রধানমন্ত্রী কেন মণিপুরের ঘটনায় চোখ বন্ধ করে বসে আছেন? এমন ছবি কি তাঁকে বিচলিত করে না?’

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

8 − five =