মৃত পড়ুয়ার নদিয়ার বাড়িতে তৃণমূলের এক প্রতিনিধি দল

যাদবপুরের পড়ুয়া মৃত্যু নিয়ে সোমবারই মুখ খুলতে দেখা গিয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। আর এবার মৃত পড়ুয়ার নদিয়ার বাড়িতে তৃণমূলের এক প্রতিনিধি দল পাঠাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, দলের পাঁচ সদস্যের এক প্রতিনিধি দল তৈরি করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। প্রতিনিধি দলে রয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু, নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজা, মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার এবং তৃণমূল যুবর রাজ্য সভানেত্রী সায়নী ঘোষ।

আগামীকাল এই পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদল বুধবার মৃত পড়ুয়ার নদিয়ার বাড়িতে যাবেন। সন্তানহারা পরিবারের সঙ্গে দেখা করবেন। মৃত ছাত্রের পরিবারের পাশে যে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সবরকমভাবে রয়েছেন, সেই বার্তাই পৌঁছে দেবেন ব্রাত্য, শশী, চন্দ্রিমারা।

উল্লেখ্য, যাদবপুরের পড়ুয়া মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই একাধিক তত্ত্ব উঠে আসছে। কীভাবে মেন হস্টেলের তিন তলা থেকে পড়ে স্নাতক স্তরের প্রথম বর্ষের ওই পড়ুয়ার মৃত্যু হল, তা খতিয়ে দেখছেন পুলিশকর্মীরা। রহস্যমৃত্যুর ঘটনায় উঠে আসছে র‌্যাগিং-এর তত্ত্বও। তদন্তে নেমে পুলিশ ইতিমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের এক প্রাক্তনী-সহ তিন জনকে গ্রেফতার করেছে।

এদিকে সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখেও যাদবপুরের ঘটনা প্রসঙ্গে শোনা গিয়েছে। যাদবপুর যে আজকের দিনে ‘আতঙ্কপুরে’ পরিণত হয়েছে, এমন মন্তব্যও করেছেন তিনি। এদিকে যাদবপুরের ঘটনা প্রসঙ্গে বামেদেরই নিশানা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতার নিশানায় কিছু ‘আগমার্কা সিপিএম’। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, গ্রাম থেকে নতুন ছেলেমেয়েরা এলেও এই ‘আগমার্কা সিপিএম’-রা তাদের উপর অত্যাচার করে। সেই মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীও।

মুখ্যমন্ত্রী সোমবার এও জানিয়েছিলেন, ঘটনার পর ওই পড়ুয়ার বাবার সঙ্গেও তাঁর ফোনে কথা হয়েছে। আর এসবের মধ্যেই এবার তৃণমূলের তরফে একটি প্রতিনিধি দল পাঠানো হচ্ছে নদিয়ার বগুলায় ওই মৃত পড়ুয়ার বাড়িতে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 + 12 =