বিবৃতি জারি করে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য়ের তীব্র নিন্দা বিএসএফ-এর

কোচবিহারে পঞ্চায়েতের প্রচারে গিয়ে বিএসএফ-এর বিরুদ্ধে যে গুরুতর অভিযোগ এনেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার তীব্র নিন্দা করল এবার বিএসএফ। বিসএসএফ-এর তরফ থেকে  সরকারিভাবে বিবৃতি প্রকাশ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যের তীব্র নিন্দা স্পষ্ট ভাষায় জানানো হয়,’বিএসএফ-এর কাজ ভোটারদের প্রভাবিত করা নয়, সীমান্ত রক্ষাই তাদের কাজ।’ প্রসঙ্গত, সোমবার দুপুরে কোচবিহারের চান্দামারিতে প্রাণনাথ উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠের সভামঞ্চ থেকে স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে আক্রমণ করতে দেখা গিয়েছিল মুখ্যমন্ত্রীকে। বিএসএফ-এর বিরুদ্ধে তোপ দেগে বলেছিলেন, ‘আমার কাছে খবর এসেছে, ভোটের আগে বিএসএফ বর্ডারে বর্ডারে মানুষকে ভয় দেখাবে।’ এর ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই পালটা জবাবে বিএসএফ জানায়,’মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোচবিহারের চান্দামারিতে যে মন্তব্য করেছেন তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং বাস্তবের থেকে বহু দূর। বিএসএফ ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত প্রহারার কাজে নিয়োজিত। তাঁদের কাজ দেশের সুরক্ষা নিশ্চিত করা। সীমান্তবর্তী মানুষকে সুরক্ষা দেওয়া ও আন্তর্সীমান্ত অপরাধকে রোখা, অনুপ্রবেশ ও স্মাগলিং, পাচারের মতো যেকোনও ধরনের বেআইনি কাজকে ঠেকানো। যদিও পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনের কারণে সুরক্ষার জন্যেও তাদের কাজে লাগানো হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসনের নজরদারিতে এলাকার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাই হবে তাঁদের কাজ।’ একইসঙ্গে বিএসএফ-এর তরফ থেকে যে বিবৃতি জারি হয় তার তিন নম্বর পয়েন্টে বিএসএফ-এর তরফ থেকে বলা হয় যে, মুখ্যমন্ত্রী যেমন অভিযোগ করেছেন, সীমান্তবর্তী এলাকার কোনও মানুষের থেকে এরকম কোনও অভিযোগ পাওয়া যায়নি। এমনকী শুধু বিএসএফ নয়, এরকমই কেন্দ্রীয় বাহিনীর কোনও কর্তৃপক্ষের কাছেই এমন রিপোর্ট বা অভিযোগ আসেনি। সীমান্ত এলাকায় ভোটের আবহে শান্তিরক্ষার কাজে ন্যস্ত বাহিনী। এরই রেশ ধরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের করা অভিযোগের তীব্র নিন্দাও করা হয় বিএসএফ-এর তরফ থেকে।

এখানে বলে রাখা শ্রেয়, শুধু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই নন, তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী উদয়ন গুহ সহ একাধিক তৃণমূল নেতা মন্ত্রী বিএসএফ-এর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনেছেন। সীমান্তে অত্যাচার চালানোর সঙ্গে সঙ্গে অন্যায়ভাবে নির্দোষ মানুষকে মারারও অভিযোগ এনেছে তৃণমূল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × three =