রাজধানী এক্সপ্রেস অপহরণ কাণ্ডে শর্তসাপেক্ষে জামিন ছত্রধরের

রাজধানী এক্সপ্রেস অপহরণ কাণ্ডে এনআইএ মামলায় ধৃত ছত্রধর মাহাতকে শর্ত সাপেক্ষে জামিন দিল কলকাতা হাইকোর্ট। মঙ্গলবার এই জামিন দেওয়ার ক্ষেত্রে বিচারপতি দেবাংশু বসাকের ডিভিশন বেঞ্চ সংশয় প্রকাশ করে বলেন, ‘আদৌ বিচার শেষ হবে কি?’

প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালে ঘটনার ১১ বছর পর ২০২০ সালে তদন্ত হাতে নেয় এনআইএ। এই মামলায় এখনও কয়েকজন অভিযুক্ত ফেরার। এই ঘটনায় এনআইএ অভিযোগের আঙুল তুলেছে রাজ্য সরকারের দিকেই। কারণ,ধৃতদের অনেককে ট্রায়ালে আদালতে পেশ করতেও রাজ্য পুলিশ সহযোগিতা করছে না, এমনটাই দাবি করছে এনআইএ। এদিকে এখনও চার্জশিটও দেয়নি এনআইএ।  এই রকমই এক প্রেক্ষিতে ছত্রধরকে জামিন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় আদালত।

ছত্রধরকে জামিন দিলেও আদালতের তরফ থেকে স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে, দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়ার ঢুকতে পারবেন না ছত্রধর। সপ্তাহে একবার তদন্তকারী অফিসারের কাছে হাজিরা দিতে হবে। আদালতের নির্দেশ, দ্রুত এই ট্রায়াল শেষ করতে উদ্যোগ নিতে হবে জেলা জজকে।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালে ছত্রধর মাহাতোকে গ্রেপ্তার করে এনআইএ। তাঁর বিরুদ্ধে দুটি মামলা রয়েছে। রাজধানী এক্সপ্রেস ‘অপহরণ’ ও প্রবীর মাহাতোকে খুনের অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। তবে মাঝে ২ ছেলের বিয়ের জন্য শর্তসাপেক্ষে জামিন পেয়েছিলেন ছত্রধর মাহাতো। গত বছর ২ জুলাই থেকে ৮ জুলাই পর্যন্ত ছিল সময়সীমা। অন্তবর্তী জামিনের শেষ দিনে আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়েন ছত্রধর মাহাতো। আচমকাই বুকে ব্যথা অনুভব করেছিলেন। এরপর তাঁকে লালগড় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। পরে আবারও বাড়ি ফিরে বুকে ব্যথা হলে তাঁকে ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 2 =