বুধবারে শক্তিশালী রূপ নিতে চলেছে ঘূর্ণাবর্ত, শুক্রবারে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা

উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে ফুঁসছে ঘূর্ণাবর্ত। যা বুধবারের মধ্যেই শক্তিশালী রূপ নেবে। ফলে প্রবল ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস দিচ্ছে মৌসম ভবন। মৌসম ভবন সূত্রে খবর, উত্তর ভারতে তাণ্ডব চালানোর পর এবার বর্ষার খেল শুরু হবে মধ্য ও পূর্ব ভারতে। এদিকে বঙ্গোপসাগরে ঘনাচ্ছে গভীর ঘূর্ণাবর্ত। খুব শীঘ্রই যা নিম্নচাপের রূপ নেবে। তাণ্ডব চালাতে পারে ঝাড়খণ্ড, ওডিশা এবং বাংলায়। মৌসম ভবন জানাচ্ছে, বুধবার সন্ধ্যার মধ্যেই শক্তিশালী হয়ে উঠবে বঙ্গোপসাগরের এই ঘূর্ণাবর্ত। সন্ধ্যা থেকেই এর দাপট শুরু হবে। প্রবল ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে এই তিন রাজ্যে।
আগামী দুই দিনের মধ্যেই এই ঘূর্ণাবর্ত উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের উপকূলবর্তী এলাকাগুলিকে ভাসাবে। বাংলা এবং ওড়িশায় সর্বাধিক বৃষ্টিপাত ঘটাবে এই ঘূর্ণাবর্ত। ২১ জুলাই এটি গভীর নিম্নচাপের আকার ধারণ করবে। এরপর ক্রমশই সেটি মধ্য ভারতের দিকে এগোতে থাকবে। এই ঘূর্ণাবর্ত এবং বর্ষার জোড়া ফলায় বৃষ্টি হবে ওড়িশা,ছত্তিশগড়,তেলঙ্গানা,মধ্যপ্রদেশে। একইসঙ্গে আগামী তিনদিন বৃষ্টি হবে মহারাষ্ট্র, কঙ্কন এবং গুজরাত উপকূলেও।
ভুবনেশ্বরের মৌসম ভবনের ডিরেক্টর ডিরেক্টর এইচ আর বিশ্বাস জানান,’বঙ্গোপসাগরে যে ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে তা ক্রমশই শক্তি বৃদ্ধি করছে। এর জেরে আগামী ২৪ ঘণ্টা ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে উপকূলবর্তী রাজ্যগুলিতে। ১৯ থেকে অর্থাৎ বুধবার থেকে তুমুল বৃষ্টি হবে ওড়িশা এবং পশ্চিমবঙ্গে। বৃষ্টিতে ভাসবে গাঙ্গেয় উপকূলবর্তী এলাকাগুলিও।’ ২০ থেকে ২২ জুলাইয়ের মধ্যে বঙ্গোপসাগরের এই ঘূর্ণাবর্ত সর্বাধিক প্রভাব ফেলবে।
দক্ষিণবঙ্গে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা। দক্ষিণবঙ্গে একদিকে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি, অন্যদিকে বিক্ষিপ্তভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি চলবে। আপাতত ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। বাতাসে জলীয় বাষ্প বেশি থাকায় অস্বস্তি হবে। আপাতত তাপমাত্রা উল্লেখযোগ্য কোনও পরিবর্তন হবে না। বুধ ও বৃহস্পতিবার বৃষ্টি কিছুটা কম হলেও বৃষ্টি বাড়তে পারে শুক্রবার। তবে বৃহস্পতিবার থেকে বৃষ্টির পরিমাণ কিছুটা বাড়বে উত্তরবঙ্গে। তবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তরবঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে। ২৪ ঘণ্টার পর থেকে বৃষ্টির পরিমাণ কমবে। আপাতত তাপমাত্রার কোনও উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হবে না।
বুধবার দিনভর দুর্যোগের সম্ভাবনা দক্ষিণ ছত্তিশগড়, উত্তর তেলঙ্গানা এবং বিদর্ভতে। ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হবে ওড়িশা, ছত্তিশগড়, মধ্য প্রদেশ, বিদর্ভ, মারাঠাওয়াড়া, গুজরাটের কিছু অংশ, কঙ্কন, গোয়া, পশ্চিম রাজস্থান, পঞ্জাবের কিছু অংশ, হরিয়ানা, উত্তরাখণ্ড এবং হিমাচল প্রদেশে।
হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে উত্তর ভারত,সিকিম,পশ্চিমবঙ্গ,ঝাড়খণ্ডের পশ্চিমাংশে,উত্তর উত্তর প্রদেশে,দিল্লি,কর্নাটকের উপকূলবর্তী এলাকায়, কেরালা এবং আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে। ঝিরিঝিরি বৃষ্টি হবে পূর্ব উত্তর প্রদেশ, বিহার, অন্ধ্র প্রদেশ, কর্নাটকের কিছু অংশ এবং লাক্ষাদ্বীপে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × three =