জুলাইয়ের শুরুতে ঘরোয়া এবং বাণিজ্যিক এলপিজির দাম

দীর্ঘদিন প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী সাধারণত প্রতি মাসের ১ তারিখ জ্বালানির দাম আপডেট করে তেল সংস্থাগুলি। মাসের ১ তারিখ থেকেই নতুন দাম লাগু হয় সিলিন্ডারে। গত মাসেও অর্থাৎ ১ জুন বাণিজ্যিক গ্যাস সিলিন্ডারের দামে বৃদ্ধি হয়েছিল। তবে এ মাসের শুরুতে দেখা গেল অন্য চিত্র। ইন্ডিয়ান অয়েলের ওয়েবসাইট অনুসারে, ১৪.২ কেজি এলপিজি সিলিন্ডার অর্থাৎ ঘরোয়া সিলিন্ডার ও ১৯ কেজির বাণিজ্যিক সিলিন্ডারের দামে কোনও পরিবর্তন আসেনি। ফলে কলকাতায় ঘরোয়া এলপিজি সিলিন্ডারের দাম ১১২৯ টাকাতেই আটকে রয়েছে। কিন্তু বাণিজ্যিক সিলিন্ডারের দাম আটকে রয়েছে ১৮৭৫.৫০ টাকা। রাজধানী দিল্লিতে ঘরোয়া এলপিজি সিলিন্ডারের দাম রয়েছে ১১০৩ টাকা ও বাণিজ্যিক ব্যবহারের সিলিন্ডারের দাম রয়েছে ১৭৭৩ টাকা। মুম্বইতে এলপিজি সিলিন্ডারের দাম রয়েছে ১১০২.৫০ টাকা এবং বাণিজ্যিক সিলিন্ডারের দাম ১৭২৫ টাকা। চেন্নাইতে আবার এলপিজি সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে ১১১৮.৫০ টাকায় ও বাণিজ্যিক সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে ১৯৩৭ টাকায়।

সরকার গত কয়েক মাস ধরেই জ্বালানির দামে পরিবর্তন করছে। কমানো হয়েছে বাণিজ্যিক গ্যাস সিলিন্ডারের দাম। যা স্বস্তি দিয়েছে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের। জুন মাসে বাণিজ্যিক সিলিন্ডারের দাম ৮৩ টাকা কমানো হয়েছিল। তার আগে এপ্রিল, মে মাসেও কমানো হয়েছিল বাণিজ্যিক সিলিন্ডারের দাম। তবে ঘরোয়া সিলিন্ডারে গত কয়েক মাসে কোনও পরিবর্তন করা হয়নি। মার্চ মাসে এলপিজি সিলিন্ডারের দাম ৫০ টাকা বেড়েছে। এরপর থেকে ঘরোয়া দামে কোনও পরিবর্তন আনা হয়নি। বর্তমানে কলকাতায় এলপিজি সিলিন্ডারের দাম রয়েছে ১১২৯ টাকা।

এখানে বলে রাখা শ্রেয়, মাসের শুরুতেই সাধারণত গ্যাস সিলিন্ডারের দাম পরিবর্তিত হয়। কিন্তু শুধুমাত্র যে ১ তারিখেই এলপিজি সিলিন্ডারের দামে বদল হতে পারে, তেমন নয়। তেল সংস্থাগুলি চাইলে মাসের যে কোনও দিনই এলপিজি সিলিন্ডারের দামে বদল আনতে পারে। সেক্ষেত্রে বেড়ে বা কমে যেতে পারে গ্যাস সিলিন্ডারের দাম।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 + 5 =