সরকারি ডায়গনেস্টিক সেন্টারের জন্য এবার ই-রেজিস্ট্রেশন বাধ্যতামূলক

সরকারি-বেসরকারি যৌথ উদ্যোগে নির্মিত ডায়াগনোস্টিক সেন্টারের এবং ন্যায্য মূল্যে ওষুধের দোকানগুলোর জন্য কড়া পদক্ষেপ এবার রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরের। স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফ থেকে স্পষ্ট জানিয়ে হয়েছে, ডায়েলিসিস সেন্টার এবং ন্যায্য মূল্যে ওষুধের দোকানগুলো থেকে প্রাপ্ত সমস্ত রোগীদের তথ্য আপলোড করতে হবে সরকারি ওয়েবসাইটে। সঙ্গে এ নির্দেশও দেওয়া হয়েছে, ডায়েলিসিস সেন্টার এবং ডায়াগনোস্টিক সেন্টারগুলোর জন্য একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট নির্মাণ করা হয়েছে। চিকিৎসা ব্যবস্থায় আরও স্বচ্ছতা এবং দায়িত্বশীলতা আনার জন্য নতুন এই ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে বলে জানান হয় স্বাস্থ্য বিভাগের তরফে।

সরকারি হাসপাতালগুলোর সঙ্গে পিপিপি মডেলে তৈরি হওয়া ডায়েলিসিস সেন্টার, ন্যায্য মূল্যে ওষুধের দোকান কর্তৃপক্ষকে ওই নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এরপর নিয়মিত রোগীদের সমস্ত তথ্য, নিবন্ধন আপলোড করতে হবে নির্দিষ্ট সেকশনে। ফলত, রোগীর অসুস্থতার তথ্যাবলিও সহজে সংরক্ষিত হবে স্বাস্থ্য দপ্তরের ইন্টিগ্রেটেডে হেলথ মনিটরিং সিস্টেমের কেন্দ্রীয় সার্ভারে।

ফলে এরপর থেকে সরকারি হাসপাতালের সঙ্গে পিপিপি মডেলে চলা এই সেন্টারগুলোতে কোনও রোগী গেলে তাঁর আইডেন্টিটি সংক্রান্ত তথ্য সঙ্গে সঙ্গে ওই ওয়েবসাইটে আপলোড করতে হবে। তাতে উল্লেখ থাকতে হবে, রোগীদের কোন চিকিৎসক দেখেছেন, কী ওষুধ দেওয়া হয়েছে বা রোগীর সমস্ত চিকিৎসা সংক্রান্ত তথ্যও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four + 11 =