মহরমে ড্রাম বাজিয়ে মিছিল করতে গেলে লাগবে পুলিশের অনুমতি, নির্দেশ আদালতের

মহরমে ড্রাম বাজিয়ে মিছিল করতে গেলে লাগবে পুলিশের অনুমতি। এ বিষয়ে অবিলম্বে পাবলিক নোটিস বা বিজ্ঞপ্তি জারি করতে হবে কলকাতা পুলিশকে। বৃহস্পতিবার এক জনস্বার্থ মামলায় এমনই নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি টি এস শিবজ্ঞানম ও বিচারপতি হিরন্ময় ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চ। একইসঙ্গে কতক্ষণ পর্যন্ত ড্রাম বাজানো যাবে, সেই সময়ও ধার্য করে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই মামলার আবেদনকারীর দাবি করেন, তাঁর এলাকায় গভীর রাত পর্যন্ত ড্রাম বাজানো হয় মহরমে। তাঁর অভিযোগ, পুলিশকে জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। পুলিশ তাঁকে কোর্টের অর্ডার নিয়ে আসতে বলেছে বলেও দাবি করেন মামলাকারী।

এদিকে আগামী শনিবার মহরম। তার আগেই প্রধান বিচারপতি টি এস শিবজ্ঞানম ও বিচারপতি হিরন্ময় ভট্টাচার্যের নির্দেশ, যে ক্লাব বা যে গোষ্ঠী ড্রাম বাজিয়ে মহরম উদযাপন করতে চায়, তাহলে তাদের অনুমতি নিতে হবে। কোন জায়গায় ড্রাম বাজানো হবে, কতক্ষণ ধরে বাজানো হবে তা জানাতে হবে পুলিশকে। প্রধান বিচারপতি নির্দেশ দিয়েছেন, সকালে ২ ঘণ্টা ও বিকেলে ২ ঘণ্টা বেঁধে দিতে হবে ড্রাম বাজিয়ে মিছিল করার জন্য। পাশাপাশি এ নির্দেশও দেন যে, সকালে ৮ টার আগে ও সন্ধ্যায় ৭টার পর ড্রাম বাজানো যাবে না। সুপ্রিম কোর্টের রায় উল্লেখ করে প্রধান বিচারপতি বলেছেন, শান্তি বিঘ্নিত করে প্রার্থনা করার কথা কোনও ধর্মেই বলা নেই। শীর্ষ আদালতের কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, কোনও ধর্মগুরু ধর্ম প্রচারের জন্য লাউডস্পিকার ব্যবহারের কথা বলেননি। পুলিশের পাশাপাশি, দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদকেও পাবলিক নোটিস জারি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শব্দ দূষণের মাত্রা বেঁধে দেবে দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight − six =