জওয়ান মুক্তির সঙ্গে অনলাইনে ফাঁস সিনেমা

শাহরুখ খানের বিগ বাজেট ছবি জওয়ান মুক্তি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ফাঁস হল অনলাইনে।এদিকে এক রিপোর্ট বলছে, প্রথম দিনেই ১০০ কোটি টাকার আয়ের অঙ্ক ছুঁতে পারে সিনেমা। তবে তার আগে কপালে ভাঁজ ফেলেছে অনলাইনে ফাঁসের এই ঘটনা।স্বাভাবিক ভাবেই চিন্তায় জওয়ান টিমের সদস্যরা। সূত্রে খবর, বিভিন্ন টরেন্ট ওয়েবসাইট যেমন তামিল রকার্স, মুভি রুলজ এবং টেলিগ্রাম অ্যাপে এইচডি রূপেই ডাউনলোড করা যাচ্ছে এই সিনেমা। এই ঘটনার জেরে অনেকেই দাবি করছেন, মুক্তির প্রথম দিনেই অনলাইনে ফাঁস হওয়া বক্স অফিস ব্যবসায় প্রভাব ফেলতে পারে। যতটা আশা করা হচ্ছে তার থেকে কম থাকতে পারে আয়ের অঙ্ক।

এদিকে পরিসংখ্যান বলছে, মুক্তি পাওয়ার আগে ছবির সাড়ে সাত লক্ষ লাখ টিকিট বুকিং হয়ে গিয়েছে। ভারত তথা বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা শাহরুখ ভক্তরা এই ছবি দেখার অপেক্ষায়। এমতাবস্থায় জওয়ান’র পাইরেসির শিকার হওয়ার ঘটনা সিনেমা দেখার ক্ষেত্রে কিছুটা ভাটা আনবেই।

তবে শুধু জওয়ান নয়, শাহরুখ খানেরই অভিনীত পাঠান, সানি দেওলের গদর-২, অবতার-২ , টু ঝুঠি মে মক্কার, আদিপুরুষ, রজনীকান্তের জেলার, রকি অর রানি কি প্রেম কাহানি, ওএমজি-২ এর মতো বহু সিনেমাই অনলাইনে ফাঁস হতে দেখা গিয়েছে। এই প্রসঙ্গে ছবি নির্মাতারা অভিযোগের সুরেই জানিয়েছেন, এর ফলে বক্স অফিসে ব্যাপক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় নতুন ছবিগুলি। একটি ছবি বানাতে কোটি কোটি টাকার বিনিয়োগ এবং অগণিত মানুষের পরিশ্রম জড়িয়ে থাকে। অনলাইন ছবি ফাঁস হওয়ার ফলে সিনেমাহলে সেগুলি দেখার আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন দর্শকেরা।

এদিকে দেশের কপিরাইট অ্যাক্ট 1957 অনুযায়ী, পাইরেসি একটি দন্ডনীয় অপরাধ এবং আইনের অধীনে শাস্তিযোগ্য।অতীতে এই সমস্ত সাইটগুলির বিরুদ্ধে একাধিক কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কিন্তু প্রতিবারই দেখা গেছে সাইবার অপরাধীরা সাইটগুলি ব্লক করে নতুন ডোমেইন নিয়ে হাজির হয় এবং সেখানে সিনেমার পাইরেটেড কপি আপলোড করে। এবার এই সমস্ত ওয়েবসাইটগুলির বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ নেয় জওয়ান সিনেমার প্রযোজনা সংস্থা রেড চিলিস এন্টারটেনমেন্ট তাই এখন দেখার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen + eighteen =