বানিয়ে ফেলুন কম মশলায় আফগানি চিকেন

চিকেন দিয়ে বানানো যায় হাজারো পদ। চিকেনের ঝোল, ঝাল, ভাপা, স্ট্যু, স্যুপ, স্টেক- আরও কত কি! বাটার চিকেন, মেথি চিকেন, দই চিকেন, চিকেন ভর্তা, গার্লিক চিকেন এসব তো প্রায়শই বানানো হয় বাড়িতে। আর চিকেনের সুবিধা হল  চিকেনের মধ্যে কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণ কম। তবে ফাইবার বেশি থাকায় সকলকেই চিকেন খেতে বলা হয়। তবে এটাও ঠিক না যে সব সময় মশলাদার চিকেনই খেতে হবে। তাতে কম তেল-মশলায় রান্না করার চেষ্টা করুন। খুব বেশি ক্রিম আবার কাজুবাটাও নয়।

তাই আজ বানিয়ে নিন এই আফগানি চিকেন। বানাতে তেমন ঝামেলা নেই তাই খেতেও খুব ভাল।

এই চিকেন বানাতে লেগপিস লাগবে। ভাল করে চিকেনের পিস ধুয়ে নিতে হবে। একবাটি পুদিনা পাতা, একবাটি ধনেপাতা, চারটে কাঁচালঙ্কা, আদা কুচি, ১৫ কোয়া রসুন, একটা পেঁয়াজ চার টুকরো করে দিয়ে বেটে নিতে হবে।

এরপর ১০০ গ্রাম জল ঝরানো টকদই এর সঙ্গে এই মিশ্রণ মিশিয়ে নিতে হবে। এবার এর থেকে দু চামচ নিয়ে চিকেনের মধ্যে মাখিয়ে স্বাদমতো নুন আর গোলমরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে ৩০ মিনিট রেখে দিতে হবে।

এরপর কড়াইতে ঘি আর সাদা তেল গরম করে নিতে হবে একসঙ্গে। ফোড়ন হিসেবে দিতে হবে গোটা এলাচ, লবঙ্গ।

আঁচ একদম কমিয়ে বাকি মশলা নিয়ে কষাতে থাকুন। এবার হাফ চামচ হলুদ, ধনে, জিরে গুঁড়ো, গোলমরিচ, কসৌরি মেথি মিশিয়ে নিতে হবে।

সবশেষে নুন আর চিনি দিন। সবশেষে একবার চেক করে নেবেন যে নুন আর চিনি যেন ঠিক থাকে। কারণ তা যদি পরিমাণে বেশি হয় তাহলে খেতে একেবারেই ভাল লাগবে না। এরপর গ্রিলড প্যানে মাখন মাখিয়ে লেগ পিস দিয়ে গ্রিলড করে নিতে হবে।

এবার গ্রেভি ফুটলে ওর মধ্যে চিকেনের টুকরো দিয়ে দিতে হবে। বেশ মাখা মাখা হলে নামানোর আগে একটু ঘি ছড়িয়ে দিন। পোলাওয়ের সঙ্গে খেতে বেশ ভাল লাগে। অথবা রুমালি রুটি দিয়ে খেতেও বেশ লাগে এই আফগানি চিকেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − 3 =