চারদিন নিখোঁজ থাকার পর স্থানীয় ডোবা থেকে উদ্ধার ৪ বছরের শিশুর দেহ

চার দিন ধরে নিখোঁজ ইস্তাভ্রেজ আনসারি। দক্ষিণদাঁড়ির বাসিন্দা ইস্তাক আনসারির বছর চারেকের ছেলে এই ইস্তাভ্রেজ সোমবার থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়। এরপরই পরিবারের তরফ থেকে সম্ভাব্য সমস্ত জায়গায় খোঁজ করা শুরু হয়। পাশাপাশি পরিবারের তরফ থেকে লেকটাউন থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। পরে দক্ষিণ দাঁড়ি এলাকার ২৪ নম্বর রেলগেটের কাছে একটি ডোবা থেকে উদ্ধার হয় ইস্তাভ্রেজের দেহ। দক্ষিণদাঁড়ির ঘটনায় উঠছে একাধিক প্রশ্ন।

প্রথমে এই মৃত্যু ঘিরে ধোঁয়াশা তৈরি হয়। কারণ, গত চারদিন ধরে পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় শিশুটির খোঁজ চালাচ্ছিল, তবে কোনও কোঁজ পায়নি কেউই। এমনকি বিধাননগর পুলিশের সামাজিক মাধ্যমেও ছবি-সহ পোস্ট করা হয়। বুধবার লেকটাউন থানার পুলিশ দক্ষিণদাঁড়ি এলাকায় ২৪ নম্বর রেলগেটের কাছে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজও চালানো হচ্ছিল। এরপরই  একটি ডোবার মধ্যে শিশুটি পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ। শিশুটির দেহ উদ্ধার এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়তে ঘটনাস্থলে পৌঁছন পুলিশ কমিশনার গৌরব শর্মা। দেহটি উদ্ধার করে আর জি কর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। কী কারণে মৃত্যু যাবতীয় বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পুলিশ প্রাথমিকভাবে মনে করছিল, খেলতে গিয়ে ডোবায় পড়ে গিয়েই মৃত্যু হয়েছে শিশুটির। এদিকে সামনে এসেছে একটি সিভিটিভি ফুটেজ। তাতে খানিকটা এই বিষয়টিই মান্যতা পেল।

এদিকে যে সিসিটিভি ফুটেজ সামনে এসেছে, তাতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, শিশুটি বাড়ি থেকে বেরিয়ে এক কিলোমিটার মতো হাঁটে। তারপর রাস্তার ধারের রেলিং টপকে জলাশয়ের দিকে যায়। জলের গভীরতা শিশুটি বুঝতে পারেনি। জলে নামতেই শিশুটি ডুবে যায় বলে মনে করা হচ্ছে। ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছেন ফরেনসিক আধিকারিকরা। তবে সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে পুলিশ মনে করছে অসাবধনতার বশেই খেলতে গিয়ে শিশুটি পড়ে যায়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

10 + 14 =