মাতৃহারা মিঠুন চক্রবর্তী

বাবার পর এবার মাকে হারালেন মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তী। শুক্রবার মুম্বইয়ের শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তাঁর মা শান্তিরানি চক্রবর্তী। মিঠুনের কনিষ্ঠ পুত্র নমশি চক্রবর্তী নিশ্চিত করেন এই খবর। ঠাকুমার মৃত্যু খবর প্রকাশ্যে আসতেই এক সংবাদমাধ্যমকে ফোনে তিনি জানান, খবরটা সত্য। ঠাকুমা আর আমাদের মধ্যে নেই। এদিকে এই মুহূর্তে মিঠুন একটি রিয়্যালিটি শো-এর শ্যুটিংয়ের জন্য কলকাতায় আছেন। তবে এই দুঃসংবাদ পেতেই মিঠুন চক্রবর্তী মায়ের শেষকৃত্যের জন্য মুম্বই পৌঁছনোর চেষ্টা শুরু করেন।

অভিনেতার মায়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে শোকপ্রকাশ করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। টুইট করে তিনি লেখেন, ‘মাতৃবিয়োগের জন্য মিঠুন চক্রবর্তীকে জানাই আন্তরিক সমবেদনা। আশা করি, মিঠুনদা ও তাঁর পরিবার এই গভীর শোক সামলে উঠবেন।’ উল্লেখ্য কুণাল- মিঠুনের রাজনৈতিক অবস্থান একেবারেই ভিন্ন। এর আগের রাজনৈতিক ময়দানে একে অপরকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তাঁরা। তবুও এদিন অভিনেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে ভোলেননি কুণাল।

প্রসঙ্গত, লকডাউনের মধ্যেই পঞ্চানব্বই বছর বয়সে মুম্বইতে মারা যান মিঠুন চক্রবর্তীর বাবা বসন্ত কুমার চক্রবর্তী। এদিকে লকডাউনের জন্য বেঙ্গালুরুতে আটকে পড়েছিলেন অভিনেতা। বসন্ত কুমা্রের চার সন্তানের মধ্যে সবচেয়ে বড় মিঠুন চক্রবর্তী। একটি শুটিংয়ের কাজে বেঙ্গালুরুতে গিয়েছিলেন মিঠুন। এরপর লকডাউন শুরু হওয়ায় সেখানেই আটকে পড়েন। একসময় ক্যালকাটা টেলিফোনসে চাকরি করতেন মিঠুনের বাবা বসন্ত কুমার। মা শান্তিময়ী ছিলেন গৃহবধূ। চার সন্তানের মধ্যে মিঠুন ছাড়া রয়েছেন। আর রয়েছেন তিন মেয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven − three =