ক্ষমা চেয়েও বিশেষ লাভ হল না নাদিরের, সহবৎ শেখার পরামর্শ নেটিজেনদের

লাইভ পডপকাস্ট চলাকালীন খ্রিষ্ট ধর্মাবলম্বী পাক অভিনেত্রী সুনিতা মার্শালকে ইসলাম গ্রহণের জন্য চাপ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল পাক ইউটিউবার নাদির আলির বিরুদ্ধে। সুনিতা মার্শালকে নিয়ে চলা বিতর্ক তুঙ্গে উঠতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নায়িকার কাছে ক্ষমা চাইলেন ইউটিউবার নাদির। তাঁর কথায়, ‘আমি সুনিতা মার্শালকে কোনওভাবেই আঘাত করতে চাইনি। কারও ভাবাবেগেও আঘাত করার ইচ্ছে ছিল না আমার। উনি ইসলাম গ্রহণ করবেন কিনা সেটা জানতে চেয়েছিলাম শুধু।’ একইসঙ্গে পাক ইউটিউবার এও জানান, ‘আমার এবং ১.৯ বিলিয়ন ইসলাম ধর্মাবলম্বীর একটাই ইচ্ছে। আমরা চাই আরও অনেক মানুষ ইসলাম গ্রহণ করুন। তবে এর জন্য জোর করতে রাজি নই আমরা। স্বেচ্ছায় মানুষ ইসলাম গ্রহণ করুক, এটাই চাই। তবে আমার কথায় কারও খারাপ লেগে থাকলে বা আমি কারওকে অজান্তে আঘাত দিয়ে থাকলে, ক্ষমা চাইছি।’

যদিও ক্ষমা চেয়ে বিশেষ লাভ করতে পারেননি নাদির আলি। তাঁর ফেসবুক পোস্টে তাঁকে সহবৎ শেখার ব্যাপারে অনেকে পরামর্শও দেন। গুলাম আব্বাস নামের এক নেটিজেনের মন্তব্য, ‘আমি আপনার পডকাস্ট দেখেছি। আপনি জোর করছিলেন বিষয়টি নিয়ে।’ শের দিল খানের কথায়, ‘যা ক্ষতি হওয়ার ছিল, হয়ে গিয়েছে। আপনি বরং কী ভাবে প্রশ্ন করতে হয় সেই কায়দাটা শিখুন।’ ফিদা হুসেইন লেগারি লেখেন, ‘আল্লাহ পাক আপকো হিদায়ত দে- এই মন্তব্য আপনার করা। সাক্ষাৎকার নেওয়ার সময় আপনি এটা বলেছেন। আমরা এটা দেখে যন্ত্রণা পেয়েছি।’ সাজিদ সানি নামের এক নেটিজেনের কথায়, ‘সুনিতা আপনার মতো চরমবাদীর কথা শুনে হেসে উত্তর দিচ্ছিলেন। তাই ওঁকে সেলাম জানাতে চাই।’

কিন্তু, কী কারণে ক্ষমা চাইলেন নাদির আলি? ঠিক কী বিতর্ক হয়েছিল তাঁকে ঘিরে তা অনেকেই হয়তো জানেন না। কয়েকদিন আগে সুনিতা মার্শালের সাক্ষাৎকার নিতে গিয়ে তাঁকে ধর্ম সংক্রান্ত প্রশ্ন করতে শুরু করেন এই পাক ইউটিউবার। সরাসরি প্রশ্ন করেন, ‘হাসান আহমেদকে বিয়ের এত বছর পরেও কেন ইসলাম গ্রহণ করছেন না?’ ওই প্রশ্ন শুনে বেশ অস্বস্তিতে পড়েন অভিনেত্রী। তাঁর উত্তর, ‘আমার স্বামী বা শ্বশুরবাড়ির তরফে ধর্ম বদলানোর কোনও চাপ দেওয়া হয়নি। তাই আমি ধর্ম পরিবর্তনের কথা ভাবিনি।’ তাঁর সংযোজন, ‘ঈশ্বর বিশ্বাস মানুষের ব্যক্তিগত। মন থেকে ইচ্ছে করলে হয়ত ধর্ম পালটাব। তার আগে নয়।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − 8 =