বন্ধ হয়ে গেল কলকাতা বিখ্যাত নাইট ক্লাব ‘শিশা’

৩১ ডিসেম্বরের নিউ ইয়ার ইভ বা অন্য কোনও উৎসব, শহরের নাইট ক্লাবগুলিতে উপচে পড়ে ভিড়। পানীয়ে হাল্কা চুমুক, ‘লাউড মিউজিক’-এর তালে উদ্দাম নাচের মধ্যে রয়েছে আলাদা আকর্ষণ। কিন্তু ‘নাইট লাইফ’-এ অভ্যস্থ শহরবাসীর জন্য এবার এল খারাপ খবর। বন্ধ হয়ে গেল কলকাতার অন্যতম জনপ্রিয় নাইট ক্লাব ক্যামাক স্ট্রিটের ‘শিশা’। রাত বাড়লে অনেকেরেই গন্তব্য ছিল ক্যামাক স্ট্রিটের এই নাইট ক্লাব। ২০০২ সালে শুরু হওয়ার পর থেকে শিশাতে ভিড় লেগেই থাকত সুরাপ্রেমীদের। ক্যামাক স্ট্রিটের মতো বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে ভাড়া বাড়ার কারণেই দুই দশক ধরে চলে আসা এই নাইট ক্লাব বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ, এমনটাই সূত্রের খবর। কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্তের ফলে অনেকেই কাজ হারাতেও পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। এখানে বলে রাখা শ্রেয়, ২০০৯ সালে ক্যামাক স্ট্রিটে ১০ হাজার বর্গফুট এলাকায় নতুন করে শিশাকে চালু করা হয়। পার্টি ও সুরাপ্রেমীদের অন্যতম গন্তব্য হয়ে উঠতে থাকে এই শিশা। ২০১৫ সালে শিশা বিএসই বা শিশা বার স্টক এক্সচেঞ্জ নামে এই নাইট ক্লাবে অনেক বদল নিয়ে আসে কর্তৃপক্ষ।
এদিকে শিশাকে বাঁচিয়ে রাখার আশাও কোথাও যেন শোনা গেল এই নাইট ক্লাবের মুখপাত্রের গলায়। তিনি জানান, ‘বর্তমান পরিস্থিতি উপযুক্ত নয়। তবে আমরা এখনই পুরোপুরি ভাবে ক্লাব বন্ধ করার ব্যাপারে কোনও তাড়াহুড়ো করছি না।’ শিশা সূত্রে জানা গিয়েছে, ক্লাবটিকে অন্য কোনও জায়াগায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনাও চলছে।
তিলোত্তমা কলকাতা প্রতিনিয়ত পার্টি আর হৈ- হুল্লোড় বাড়ছে। সেখানে একটি জনপ্রিয় নাইট ক্লাবের বন্ধ হয়ে যাওয়া নিঃসন্দেহে এই ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। ক্যামাক স্ট্রিট, হো-চি-মিন সরণি এবং চৌরঙ্গীর মধ্য কলকাতার এই এলাকায় লাউঞ্জ, বার ও পাবের সংখ্যা কম নয়। প্রতিদিনইঅনেকেই আসেন এখানে। পাশাপাশি পার্ক স্ট্রিটের কাছাকাছি হওয়ার কারণে এই এলাকায় ভিড়ও হয় অনেক। ২০০২ সালে চালু হওয়ার পর থেকে শিশাকে নানা অবতারে দেখেছে শহরবাসী। অনেকেই বলেন শিশার হাত ধরে কলকাতায় হুক্কা সংস্কৃতি চালু হয়েছে। তবে শিশার এই সিদ্ধান্ত অন্যান্য নাইট ক্লাবগুলোর ভবিষ্যত নিয়েও প্রশ্ন তুলে দিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 1 =