তৃতীয় দফার প্রথম দিনেই কৃষক কল্য়াণমূলক প্রকল্পের ফাইলে সই প্রধানমন্ত্রী মোদির

তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী পদে রবিবার শপথ নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। সোমবার ছিল তৃতীয় দফার প্রধানমন্ত্রীত্বের প্রথম দিন। সোমবার সকালেই সাউথ ব্লকে প্রধানমন্ত্রীর দফতরে যান মোদী। তাঁকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন তাঁর গোটা মন্ত্রিসভা। তৃতীয় দফায় প্রথম যে ফাইলে সই করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি, তা হল কৃষকদের কল্যাণমূলক প্রকল্প। এদিন প্রধানমন্ত্রী কিষাণ নিধির ১৭তম কিস্তি প্রকাশের অনুমোদন দেন নরেন্দ্র মোদি। এইস্বাক্ষরের ফলে উপকৃত হবেন নয় দশমিক তিন কোটি কৃষক। প্রধানমন্ত্রী কিষাণ নিধির আওতায় প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকা দেবে মোদি সরকার। ফাইলে স্বাক্ষরের পর প্রধানমন্ত্রী জানান, ‘আমাদের সরকার কিষাণ কল্যাণে সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তাই দায়িত্ব নেওয়ার পরই কৃষক কল্যাণ সম্পর্কিত প্রথম ফাইলে স্বাক্ষর। আমরা ভবিষ্যতে কৃষক ও কৃষি খাতের জন্য আরও বেশি করে কাজ করে যেতে চাই।’

এদিকে রাজস্থান সরকার শনিবার প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্পে ২০০০ টাকা বৃদ্ধির ঘোষণা করেছে। ভাতা- ৬০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০০০ টাকা করা হয়েছে। এক্স হ্যান্ডেলে রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী ভজনলাল শর্মা বলেন, ‘রাজ্য সরকার কৃষকদের সামগ্রিক উন্নতির লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি ২০০০ টাকা বাড়িয়েছে। কৃষকদের দেওয়া বার্ষিক ৬০০০ টাকা ভাতা বাড়িয়ে ৮০০০ করা হয়েছে। রাজ্য সরকার অন্নদাতাদের সর্বাত্মক উন্নতির জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

কৃষকদের আয় বাড়ানোর লক্ষ্যে মোদি সরকারের প্রথম মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী কিষাণ যোজনা শুরু হয়েছিল। এই প্রকল্পের অধীনে, ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকরা প্রতি বছর কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে ৬০০০ টাকা সাহায্য পান। এই সাহায্য সরাসরি ডিবিটি-র মাধ্যমে কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হয়। কৃষকরা প্রতি বছরে ২০০০ টাকার তিনটি কিস্তি পান।

পাশাপাশি এও জানানো হয়েছে, পিএম কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্পের সুবিধা পেতে ১৭তম কিস্তির টাকা পেতে কৃষকদের অবশ্যই তাঁদের অ্যাকাউন্টে ই-কেওয়াইসি জমা করতে হবে। এখনও পর্যন্ত কেওয়াইসি জমা না করে থাকলে পিএম কিষাণ পোর্টালে গিয়ে এই কাজটি করে ফেলতে হবে। বায়োমেট্রিকের ভিত্তিতে বিভিন্ন সিএসসি কেন্দ্রে ই-কেওয়াইসি  করিয়ে নিতে পারবেন কৃষকরা।

প্রসঙ্গত, ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেছিলেন ১৬তম কিস্তির টাকা পাওয়ার দিন। এর আগে কেন্দ্র সরকার নয় কোটিরও বেশি কৃষকের অ্যাকাউন্টে ২১ হাজার কোটি টাকা পাঠিয়েছে। ২০২৩ সালের নভেম্বর মাসে এই প্রকল্পের ১৫তম কিস্তির টাকা ঢুকেছিল কৃষকদের অ্যাকাউন্টে। ১৬ তম কিস্তির অর্থ ২০২৪ সালের মার্চ মাসে ঢুকেছিল কৃষকদের অ্যাকাউন্টে।

এদিকে সূত্রে খবর, সোমবার বিকেলেই মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠক রয়েছে। সেখানে মন্ত্রিত্ব বন্টন করা হতে পারে সদ্য শপথ গ্রহণ করা মন্ত্রীদের মধ্যে। পাশাপাশি মোদির ক্যাবিনেটের তরফে রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর কাছে সংসদ অধিবেশন ডাকার আবেদনও জানানো হবে। এই অধিবেশনেই পেশ করা হতে পারে পূর্ণাঙ্গ বাজেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − 14 =