সাইবার সুরক্ষা সমাধানে ভারতে শুরু রিস্ক টু রেজিলিয়েন্স ওয়ার্ল্ড ট্যুরের

কলকাতা, ২৫ শে এপ্রিল ২০২৪ – সাইবার সুরক্ষা সমাধানে সারা বিশ্বে নেতৃস্থানীয় সংস্থা ট্রেন্ড মাইক্রো এবার ভারতে তার রিস্ক টু রেজিলিয়েন্স ওয়ার্ল্ড ট্যুরের সূচনা করল। এদিন এক ইভেন্টের মধ্যে দিয়ে ভারতের সাত শহর জুড়ে এক সার্বিক টুরের সূচনা হয়। গতবছরে এই  ট্যুরে বিশেষ সাফল্য আসার পর ৬০টি দেশ এই ইভেন্টের আয়োজন করা হয়। তার অঙ্গ হিসাবে ভারতের পাঁচটি বড় শহরেও এই ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, কলকাতায় এই ইভেন্টে ৪০টি সংগঠনের প্রতিনিধি হিসাবে ৭০ জনের বেশি সাইবার সুরক্ষা ক্ষেত্রের নেতা উপস্থিত ছিলেন। এর সঙ্গে কলকাতার এই ইভেন্ট ২০২৪ ট্যুরে বেঁধে দেওয়া হল এক বহুমুখী সুরও। “ইনোভেশন মিটস অ্যাড্রিনালিন” শীর্ষক ইভেন্টটিতে আধুনিক সাইবার নমনীয়তা, এক্সটেন্ডেড ডিটেকশন অ্যান্ড রেসপন্স (XDR) আর অ্যাটাক সারফেস রিস্ক ম্যানেজমেন্ট (ASRM)-এর ঝুঁকি দূর করার কৌশলের মত বিষয় নিয়ে আলোচনাও হয়।

প্রধান বিষয়গুলির মধ্যে ছিল AWS-এর এক প্রতিনিধির সঙ্গে ফায়ারসাইড চ্যাট। তিনি ক্লাউড নিরাপত্তার চ্যালেঞ্জগুলো সম্পর্কে অবগত করলেন। তাছাড়া ছিল সাইবার কনসলিডেশন ও যোগাযোগের কৌশল নিয়ে হয় একটি প্যানেল ডিসকাশন। প্যানেলে ছিলেন সন্দীপ সেনগুপ্ত, ডিরেক্টর অ্যাট ISOAH এবং সূর্য ভূষণ, হেড অফ আই টি অ্যান্ড সিকিউরিটি ইনফ্রাস্ট্রাকচার অ্যাট এমজংশন সার্ভিসেস লিমিটেড।

এর পাশাপাশি সারদা টিক্কু, যিনি সম্প্রতি ট্রেন্ড মাইক্রোর ভারত ও সার্কের কান্ট্রি ম্যানেজার নিযুক্ত হয়েছেন, প্রারম্ভিক ভাষণে ভারতীয় বাজারের চালচিত্রে বর্তমানে সাইবার বিপদ ঠিক কোথায় দাঁড়িয়ে সে সম্পর্কে জানান। তিনি জোর দেন ক্রমবর্ধমান অ্যাটাক সারফেস এবং ব়্যানসমওয়্যার, ফিশিং আর বিজনেস ইমেল ফাঁস হয়ে যাওয়ার স্থায়ী বিপদের উপর। তাঁর সেশনে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাচালিত প্রতারণা এবং মাল্টি-ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন (MFA) এড়িয়ে নতুন ধরনের আক্রমণের মত ক্রমশ উঠে আসা প্রবণতার কথাও ছিল। এ থেকে বোঝা যায় যে সাইবার সুরক্ষা সমাধানে ক্রমাগত উদ্ভাবনের প্রয়োজন কতখানি। পাশাপাশি তিনি এও জানান, পূর্বাঞ্চলের বাজারের তাৎপর্য উল্লেখ করে সারদা বলেন যে এই অঞ্চলে ট্রেন্ড মাইক্রোর ১৫ বছরের উপস্থিতি এবং ঐক্যবদ্ধ প্ল্যাটফর্মভিত্তিক সমাধান আর সিকিউরিটি অপারেশনস সেন্টার অ্যাজ আ সার্ভিসের (SOCaaS) ক্রমবর্ধমান চাহিদা প্রযুক্তি ও সাইবার সুরক্ষায় এই অঞ্চলের ক্রমশ পরিণত হওয়ার নিদর্শন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven + 17 =