রাষ্ট্রপতির কাছে স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন জানাবেন রাজ্যের অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা

আগামী ৪ অগাস্ট রাষ্ট্রপতির কাছে স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন জানাবেন রাজ্যের অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা, সোমবার এক সাংবাদিক বৈঠকে এমনটাই জানানো হয়েছে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের তরফ থেকে। একইসঙ্গে এদিন মঞ্চের তরফে ভাস্কর ঘোষ জানান, রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ন্যায্য ডিএ-র দাবি-সহ শূন্যপদে স্থায়ী নিয়োগ এবং যোগ্য অনিয়মিতদের নিয়মিতকরণের দাবিতে তাঁরা দিল্লি যাবেন। দিল্লি গিয়ে তাঁরা রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর হাতে একটি দাবি সনদ তুলে দেবেন। পাশাপাশি তাঁরা দেখা করতে চান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ এবং কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধানের সঙ্গে। ইতিমধ্যে তাঁরা রাষ্ট্রপতি ভবন-সহ অর্থ এবং শিক্ষামন্ত্রীর কাছে ই-মেল মারফত সাক্ষাতের আবেদন জানিয়েছেন। পাশাপাশি, সোমবারই রাষ্ট্রপতির কাছে নিজেদের দাবি সম্বলিত একটি চিঠি মেল করে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, চলতি বছর এপ্রিল মাসের ১০ এবং ১১ তারিখে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের সদস্যেরা দিল্লির যন্তর মন্তরে গিয়ে ধরনা দিয়েছিলেন। সেবার উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখড়, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি এবং ধর্মেন্দ্র প্রধানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে নিজেদের দাবির কথা জানিয়ে এসেছিলেন তাঁরা। কিন্তু এ বার আর কোনও ধর্না কর্মসূচি রাখা হয়নি। সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের তরফে ভাস্কর জানিয়েছেন, রাষ্ট্রপতি এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা তাঁদের সময় দিলেই দিল্লি গিয়ে নিজেদের দাবির কথা জানাবেন। গত কয়েক মাস ধরে শহিদ মিনারের নীচে তাঁরা ডিএ-র দাবিতে আন্দোলন করছেন। রাষ্ট্রপতিকে পাঠানো চিঠিতে সে কথাও উল্লেখ করেছেন করেছেন সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের সদস্যেরা। ওই চিঠির প্রতিলিপি পাঠানো হয়েছে কেন্দ্রীয় অর্থ এবং শিক্ষামন্ত্রীকে।

এদিকে মঙ্গলবার ১৮০ দিনে পড়বে আন্দোলন। আর ২০০তম দিনে একটি রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হবে। এরপর আগামী ৪ অগাস্ট সারা রাজ্যের অবসর প্রাপ্ত কর্মচারিরা, যাঁদের জীবন যাপন করা অসুবিধাজনক হয়ে পড়ছে, তাঁরা রাষ্ট্রপতির কাছে স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন করবেন। কারণ, মামলা-মোকদ্দমা, বৈঠকের পরও কোনও লাভ হয়নি। রাজ্য সরকার এখনও তাদের অবস্থানে অনড়। সরকারের ঘরে টাকা নেই, এই যুক্তিই বারবার দেখানো হয়েছে।

এদিকে আদালতের নির্দেশে আন্দোলনকারীদের নিয়ে নবান্নে বৈঠক হলেও, তা ফলপ্রসূ হয়নি।এবার তাই আন্দোলনকে বৃহত্তর পর্যায়ে নিয়ে যেতে চাইছে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ। সরকারি কর্মীরা এবার কলকাতা ছাড়িয়ে তাঁদের স্বর পৌঁছে দিতে চাইছেন দিল্লিতে। চিঠি দিয়ে রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর সাক্ষাৎ চাইলেন তাঁরা। এখানেই শেষ নয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে বার্তা দিতে বিধানসভা অভিযান করার পরিকল্পনা রয়েছে আন্দোলনকারীদের। অধিবেশন চলাকালীন বিধানসভা অভিযান করা হবে বলে জানিয়েছেন সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের আহ্বায়ক ভাস্কর ঘোষ, তবে এখনও দিনক্ষণ জানাননি তিনি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × 4 =