রাজ্য বারবার মুখ থুবড়ে পড়ছে আদালতে, শাসকদলকে বিঁধলেন নওশাদ

‘পুলিশ এবং শাসকের পক্ষ নিয়ে রাজ্য যা সিদ্ধান্ত নিচ্ছে, তাতে বারবারই কোর্টে গিয়ে মুখ থুবড়ে পড়ছে নির্বাচন কমিশন।’দলীয় প্রার্থীদের হয়ে প্রচারে বেরিয়ে এই ভাষাতেই সরাসরি রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে বিঁধলেন আইএসএফ বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকি। শনিবার হাওড়ার জগৎবল্লভপুরে দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে প্রচারে গিয়ে আইএসএফ বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের প্রতিটা পদক্ষেপ রাজ্যের শাসক দলকে সুযোগ করে দিচ্ছে। কমিশন থেকে শাসক দল কিভাবে সুবিধা পায়, এই বিষয়ে কমিশনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।’ একইসঙ্গে তিনি এও জানান, ‘জনগন যেভাবে সচেতন হচ্ছে তাতে মানুষের মনের মধ্যে বিস্ফোরণ হচ্ছে। যদি কেউ ভোট লুট করতে আসে, তাহলে গণতান্ত্রিক উপায়ে তাকে আটকানো হবে। এই নির্বাচনে যে সংখ্যায় কেন্দ্রীয় বাহিনী নেওয়া হচ্ছে তা যথেষ্ট নয়। আমাদের দাবি হয় পর্যাপ্ত কেন্দ্রীয় বাহিনী দেওয়া হোক নাহলে নির্বাচনের দফা বৃদ্ধি করা হোক। যা আদালতে জানানো আছে।’

এরই পাশাপাশি বিরোধীদের ওপরে যে আক্রমণের ঘটনা চলছে শাকদলের তরফ থেকে সেই প্রসঙ্গে তিনি জানান, ‘বাংলায় গণতন্ত্র বিপন্ন। যার উত্থান আছে তার পতনও আছে। তবে এক্ষেত্রে পতন কিভাবে হবে সেটাই দেখার।’এরপরই হাওড়ায় আইএসএফ-এর তরফ থেকে প্রার্থী দেওয়া নিয়ে নওশাদ জানান, ‘হাওড়া জেলার অনেক জায়গাতেই প্রার্থী দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। কিন্তু আমাদের প্রার্থীদের বাড়িতে এবং আত্মীয়দের বাড়িতেও গিয়েও হুমকি দিয়েছে তৃণমূল। তার মধ্যেও অনেকেই মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন, তাঁদের মধ্যে বেশ কয়েকজনকে মনোনয়ন প্রত্যাহারে বাধ্য করানো হয়েছে’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight − seven =