সিআইডির তলব পেয়ে ভবানী ভবনে মিনাখাঁর তৃণমূল প্রার্থী মোহারুদ্দিন গাজি

মক্কায় বসে পঞ্চায়েত ভোটের মনোনয়ন জমা দেওয়া দেওয়ার ঘটনায় মিনাখাঁর তৃণমূল প্রার্থী মোহারুদ্দিন গাজিকে ভবানী ভবনে তলব করল সিআইডি। কারণ, অভিযোগ উঠেছিল উত্তর ২৪ পরগনার মিনাখাঁর তৃণমূল প্রার্থী মোহারুদ্দিন গাজির মনোনয় জমা দেওয়ার সময় তিনি ছিলেন মক্কায়। ফলে শারীরিক ভাবে তাঁর উপস্থিত থাকা কোনও ভাবেই সম্ভ নয় বলেই আদালতে মামলা করে বিরোধী শিবির। কারণ, নিয়ম অনুসারে মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময় উপস্থিত থাকতে হয় প্রার্থীকে। এরপর আদালত মোহারুদ্দিন গাজির এই মনোনয়ন জমা পড়ার ঘটনায় তদন্ত ভার তুলে দেয় রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা সিআইডি-র হাতে। সেই মোতাবেক এবার তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ভবানী ভবনে তলব করে সিআইডি। ভবানী ভবন থেকে তলব পাওয়ার পরই মঙ্গলবার সকালেই হাজিরা দেন তৃণমূল প্রার্থী। এর আগে মিনাখাঁর বিডিও-কে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। এবার খোদ মইনুদ্দিনকে ডেকে পাঠানো হয়।

সূত্রে খবর, মঙ্গলবার সকাল এগারোটার একটু পরে ভবানী ভবনে প্রবেশ করেন মোহারুদ্দিন গাজি। এদিকে সূত্রের খবর, তাঁকে মূলত জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে, তিনি কীভাবে হজে গিয়ে মক্কা থেকে বসে মনোনয়ন জমা দিলেন সে ব্যাপারেই।

উল্লেখ্য, হাইকোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিনহার নির্দেশে অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি দেবীপ্রসাদ দে-র নজরদারিতে সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়। ইতিমধ্যেই তদন্ত বেশ খানিকটা এগিয়েছে। বিডিও অফিস থেকে নথি সংগ্রহ করা হয়েছে। সেখানকার অফিসারদের ডেকে একপ্রস্থ জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়েছে তৃণমূল প্রার্থী মোহারুদ্দিন গাজির মনোনয় কী করে জমা পড়ল তা নিয়ে। এবার মূল অভিযুক্তকে ডেকে পাঠিয়ে সিআইডি জানতে চায় এই ঘটনার সঙ্গে আর কে কে জড়িত, মনোনয়ন জমা দিতে কে বা কারা তাঁকে সাহায্য করেছিলেন সেই সমস্ত বিষয়ে। যদিও মোহারুদ্দিন গাজি মক্কাতে হজ সেরে দেশে ফিরে জানিয়েছিলেন গোটা প্রক্রিয়াই আইন মেনে হয়েছে। তিনি এও বলেন, ‘কিছু কিছু মানুষ ভুল ভাবাচ্ছে। যখন পঞ্চায়েত ভোটের দিনক্ষণ ঠিক হয়, সেই সময় পার্টির তরফে আমার নাম ঘোষণা করা হয়। এবার হঠাৎই হজে যাওয়ার দিনও ঠিক হয়। সেই সময় আমি দলেরই কয়েকজন কর্মীর হাতে ফর্ম দিয়ে চলে যাই।’

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 + 3 =