কামারহাটি পুরসভার ১৮ জন কর্মীকে তলব সিবিআইয়ের

এবার পুরনিয়োগ মামলায় তৎপরতা দেখানো শুরু হল সিবিআইয়ের তরফ থেকে। এই প্রথমবার পুর-মামলায় চাকরিরতদের তলব করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তালিকায় প্রথমেই নাম কামারহাটি পুরসভার। শুক্রবার পুরনিয়োগ দুর্নীতি মামলায় কামারহাটি পুরসভার ১৮ জন কর্মীকে তলব ৩১ জুলাই তলব করা হয়েছে সিবিআইয়ের তরফ থেকে। প্রসঙ্গত, এই ১৮ জন ২০১৪ সালের পর চাকরি পেয়েছেন। এমনকী তাঁরা প্রত্যেকেই চাকরিও করছেন। নিজাম প্যালেসে আগামী ৩১ তারিখ ওই ১৮ জনকে তলব নিয়ে ইতিমধ্যেই জোর চর্চা শুরু হয়েছে।

এদিকে একাধিক পুরসভার নিয়োগ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার স্ক্যানারে রয়েছে। বিভিন্ন পুরসভায় নিয়োগে স্বজনপোষণ বা আর্থিক লেনদেনই প্রাধান্য পেয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষক নিয়োগ মামলায় অয়ন শীল গ্রেফতার হওয়ার পরই সামনে আসে এই পুরনিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ। ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষের আগে কলকাতা পুরনিগম ছাড়া রাজ্যের অন্য কোনও পুরসভা বা পুরনিগমে নিয়োগের ক্ষেত্রে মিউনিসিপ্যাল সার্ভিস কমিশনের ভূমিকা ছিল না। কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে সেই পুরসভার কমিটি বা চেয়ারম্যানের ভূমিকাই সবকিছু ছিল। রাজ্যের প্রায় ৬০টি পুরসভা এখনও অবধি তদন্তকারীদের আতস কাচের নীচে রয়েছে বলে সূত্রের খবর। ইডি অয়ন শীলকে গ্রেফতার করে জেরা করতে শুরু করার পরই এসব তথ্য উঠে আসতে শুরু করে বলে সূত্রের খবর। পুরসভায় গ্রুপ সি, টাইপিস্ট, মজদুর নিয়োগের ক্ষেত্রেও জড়িয়ে গেছে এই দুর্নীতি। এই তালিকায় রয়েছে  কামারহাটি, হালিশহর, পানিহাটি, দক্ষিণ দমদম পুরসভার নামও। ইতিমধ্যে পুরসভার আধিকারিকদেরও ডাক পড়েছে কলকাতায় সিবিআইয়ের দফতর নিজাম প্যালেসে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − sixteen =