বিস্ফোরক পোস্ট তৃণমূল বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্য়াপারির

ফের একবার ফেসবুকে নির্দল প্রার্থীর দেওয়াল লিখনের ছবি পোস্ট করে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন তৃণমূল বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারি। তাঁর অভিযোগ, দলীয় প্রার্থীকে হারিয়ে দেওয়ার জন্যই নির্দল প্রার্থীকে দাঁড় করানো হয়েছে। গোটা বলাগড় জুড়ে এই খেলা চলছে বলেও অভিযোগ করেন তৃণমূলের এই বর্ষীয়ান বিধায়ক।

ডুমুর দহ নিত্যানন্দপুর ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের ২০৫ নম্বর বুথের নির্দল প্রার্থী সুখ দের দেওয়াল লিখনের ছবি পোস্ট করে তৃণমুল বিধায়ক লেখেন, ‘এই কেন্দ্রে দীপক দাস নামে তৃণমূলের প্রতীকপ্রাপ্ত একজন প্রার্থী রয়েছেন। তাঁর অপরাধ বিধানসভা নির্বাচনে সে দলের হয়ে খেটে ছিল, দলতে জিততে সাহায্য করে ছিল। সেই অপরাধে দলের আরেক গ্যাং তাঁকে হারানোর জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছে। গোটা বলাগড় জুড়ে এই খেলা চলছে।’

এখানে বলে রাখা শ্রেয়, বেশ কয়েকদিন ধরে দলে একাংশের বিরুদ্ধে সুর চড়াচ্ছেন তৃণমূল বিধায়ক। দলের বিরুদ্ধে তাঁর অভিযোগ, যাঁরা বিধানসভা ভোটে তার হয়ে পরিশ্রম করেছেন তাঁদেরকে টিকিট দিয়ে সম্মান দেওয়া হয়নি। তিনি ১০৯ জন প্রার্থীকে মনোনীত করলেও তাঁদের মধ্যে অনেককে টিকিট দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেন তৃণমূল প্রার্থী। আগেও বলাগড়ের ব্লক তৃণমূল সভাপতি নবীন গঙ্গোপাধ্যায়কে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তৃণমূল বিধায়ক।

যদিও বিধায়কের যাবতীয় অভিযোগ খারিজ করেছেন বলাগড় ব্লক তৃণমূল। বলাগড় ব্লক তৃণমূলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে , ‘দলীয় প্রতীক তিনিও জমা দিয়েছিলেন। আমিও দিয়েছি। নিয়ম আছে দুইজনে যদি দলীয় প্রতীক পায়। সে ক্ষেত্রের যাঁরা আগে মনোনয়ন করেছিল তাঁরাই দলীয় প্রতীকে লড়বেন। উনি নির্দলদের সমর্থন করবেন কি না বলতে পারব না। তবে ভোটের টিকিট বিক্রির বিষয়ে তদন্ত হওয়া দরকার। তাহলেই গোটা বিষয়টা পরিষ্কার হয়ে যাবে। ‘

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 4 =