আরবিআই-এর তরফ থেকে জরিমানা ৩ ব্যাংককে

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার কড়া নজরদারিতে জরিমানার কবলে আরও ৩  ব্যাঙ্ক।আরবিআই এর তরফ থেকে এই তিনটি ব্যাংককে জানানো হয়েছে, নির্দিষ্ট নির্দেশ না মেনে চলার জন্যই এই জরিমানা। এই তিনটি ব্যাংক হল জম্মু অ্যান্ড  কাশ্মীর ব্যাঙ্ক  অর্থাৎ (জেএন্ডকে ব্যাঙ্ক) যার উপর ২.৫ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এর সঙ্গেই আরবিআই -এর জরিমানার কবলে পড়েছে ব্যাঙ্ক অফ মহারাষ্ট্রও। এই ব্যাঙ্কটিকে ১.৪৫ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, জম্মু অ্য়ান্ড কাশ্মীর ব্যাঙ্ক সিআরআইএলসি অর্থাৎ সেন্ট্রাল  রিপোজিটরি অফ ইনফরমেশন অন লার্জ ক্রেডিটস -এ জমা দেওয়া ডেটার গুণমান নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হয়েছে। এছাড়া আরবিআই -এর আরও একাধিক নিয়ম না মেনে চলার জন্যই এই পদক্ষেপ নিয়েছে। এর প্রভাব এরপরই এর প্রভাব পড়তে দেখা যায় ব্যাঙ্কের শেয়ারেও। শুক্রবার জে অ্যান্ড কে ব্যাঙ্কের শেয়ার বন্ধ হয় ৫৬.৫০ টাকায়। যা ২.৯৯ শতাংশ কম আগের দিনের থেকে। একই অবস্থা ব্যাঙ্ক অফ মহারাষ্ট্রের শেয়ারেও। এই ব্যাঙ্কের শেয়ারটি ২৭.১৬ টাকায় শুক্রবার বন্ধ হয়। যা আগের দিনের বিচারে ২.০৯ শতাংশ কম।

অন্য একটি বিবৃতি দিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের তরফে জানানো হয়েছে, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ককে ৩০লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জানানো হয়েছে ব্যাঙ্কটি, ক্রেডিট কার্ডের বকেয়া পরিশোধ করতে বিলম্ব হওয়ার কারণে কিছু অ্যাকাউন্টে শাস্তিমূলক এই চার্জ ধার্য করা হয়েছে। কিন্তু আসল বিষয়টি মোটেই তেমন ছিল না। দেখা গিয়েছে ওই অ্যাকাউন্টের গ্রাহকেরা থার্ড পার্টি প্ল্যাটফর্ম দিয়ে আগেই পেমেন্ট করেছিলেন। কিন্ত তা সত্ত্বেও ব্যাঙ্কের তরফে পেনাল্টি চার্জ করা হয়। এর প্রভাব পড়েছে অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের শেয়ারেও। স্টকটি শুক্রবার ০.৭ শতাংশ কমে ৯৫৮.৩০ টাকায় গিয়ে দাঁড়ায়।

উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, ব্যাঙ্কগুলোর উপর চার্জ আরোপ করার আগে এই তিনটি ব্যাঙ্ককেই নোটিশ পাঠিয়েছিল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। সমস্ত নির্দেশাবলী মেনে চলতে ব্যর্থতার জন্য কেন ব্যাংকগুলোর উপর জরিমানা আরোপ করা উচিত নয় তার কারণ দেখানোর জন্যই এই নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। এরপর নোটিশে ব্যাঙ্কগুলির উত্তর বিবেচনা করার পরে, আরবিআই এই পদক্ষেপ নেয়।

এই ঘটনায় আরবিআই-এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, যে জরিমানা ব্যাঙ্কগুলোর উপরে চাপানো হয়েছে, তা নিয়ম না মেনে চলার ক্ষেত্রে ঘাটতির জন্যই চাপানো হয়েছে। এর সঙ্গে গ্রাহকদের লেনদেন বা চুক্তির ক্ষেত্রে কোনও সম্পর্ক নেই। অর্থাৎ গ্রাহকেরা এরফলে প্রভাবিত হবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × 5 =