আদালত আবেদন মঞ্জুর করলে বিধানসভা পা রাখতে পারেন ৩ জেলবন্দি বিধায়ক

বিধানসভায়.পা রাখতে পারেন নদিয়ার পলাশিপাড়ার বিধায়ক মানিক ভট্টাচার্য, মুর্শিদাবাদের বড়ঞার বিধায়ক জীবনকৃষ্ণ সাহা এবং বেহালা পশ্চিমের বিধায়ক পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কারণ, আসন্ন রাজ্যসভার নির্বাচন। চাইলে এই নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন তিন জেলবন্দি বিধায়ক পার্থ চট্টোপাধ্যায়, মানিক ভট্টাচার্য এবং জীবনকৃষ্ণ সাহা। ফলে এই তিন জেলবন্দি বিধায়কের ইচ্ছার ওপর নির্ভর করছে তাঁদের আবার বিধানসভা চত্বরে দেখা যাবে কি না। আবার কিছুটা নির্ভর করছে আদালতের সিদ্ধান্তের ওপরেও। কারণ, এই নির্বাচনে অংশ নিতে হলে আদালতে করতে হবে আবেদন।  এরপর আদালত যদি আবেদন মঞ্জুর করে তবেই রাজ্যসভার সাংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন এই তিন জেলবন্দি বিধায়ক। কারণ, তাঁরা বিচারাধীন বন্দি হিসাবে জেলে থাকলেও তাঁদের বিধায়ক পদ এখনও খারিজ হয়নি। তাই চাইলে আদালতের দ্বারস্থ হয়ে ভোটদানের অধিকার চাইতেই পারেন।

এদিকে তৃণমূল শিবির সূত্রে খবর, আগামী ১২ জুলাই রাজ্যসভার ভোটে মনোনয়ন দিতে চলছেন তৃণমূল প্রার্থীরা। এরপর ২৪ জুলাই ভোট। সেদিনই গণনা হবে।

রাজ্যের ৬টি আসনে রাজ্যসভার নির্বাচন হবে। সঙ্গে একটি আসনে উপনির্বাচন হওয়ার কথা। সেই ভোটে নিজের মত প্রকাশের অধিকার পাবেন এই তিনজেলবন্দি বিধায়কও।বঙ্গ রাজনৈতিক শিবির এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশের অনুমান, যেহেতু ভোটদানের বিষয়, তাই তা মঞ্জুর করতে পারে আদালত। তেমনটা হলে রাজ্যসভার ভোটে তিন বিধায়ক বিধানসভায় গিয়ে নিজের ভোট প্রয়োগ করবেন।

প্রসঙ্গত, রাজ্যের ছ’টি আসনে সাংসদদের মেয়াদ সম্পূর্ণ হওয়ায় এই নির্বাচন হচ্ছে। ডেরেক’ও ব্রায়ান, দোলা সেন, সুস্মিতা দেব, শান্তা ছেত্রী ও সুখেন্দুশেখর রায়ের রাজ্যসভার সাংসদ পদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। একইসঙ্গে মেয়াদ শেষ হচ্ছে কংগ্রেসের সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্যের পদের মেয়াদও। অন্যদিকে লুইজিনহো ফেলেইরো মেয়াদ শেষের আগেই সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ায় আরও একটি আসনে হবে উপনির্বাচন। বাংলার পাশাপাশি ২৪ তারিখ ভোট হবে গুজরাতের তিনটে, গোয়ার একটি আসনে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × three =