টিউমার মানেই ক্যানসার নয়

ক্যানসার মানে সবার কাছে আতঙ্ক।শরীরের কিছু অংশে কোষের অস্বাভাবিক বৃদ্ধির কারণে ক্যানসার হয়। যদি প্রাথমিক পর্যায়ে নির্ণয় করা না হয়, তাহলে শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়ে ক্যানসার। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০২০ সালে বিশ্বব্যাপী ১০ মিলিয়নেরও বেশি ক্যানসার সম্পর্কিত মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। বেশিরভাগ ক্যানসারই টিউমার বা মাংসপিণ্ড থেকে ছড়িয়ে পড়ে শরীরে, এমনটাই জানাচ্ছেন চিকিৎসকেরা। সঙ্গে এও জানানো হয়েছে যে, সাধারণত টিউমারের জীবাণু থেকে ক্যানসার ছড়ায়। তবে সব টিউমার কী ক্যানসার হয় তা নিয়ে একটা প্রশ্ন রয়েছে সবার মনেই

এখানে প্রথমেই বলে রাখা দরকার, সব ধরনের টিউমার ক্যানসার হয় না। কোনও টিউমারকে উপেক্ষা করার সুযোগ আছে। স্কিন ওয়ার্ট হলো এক ধরনের টিউমার যা ছড়ায় না ও তার অবস্থানে সীমাবদ্ধ থাকে। এগুলো অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সরানো যেতে পারে ও পরবর্তী সময়ে তা আর নতুন করে ফিরে আসার ঝুঁকিও থাকে না।

ম্যালিগন্যান্ট বা প্রিম্যালিগন্যান্ট টিউমারগুলো থেকে ক্যানসারের সূত্রপাত ঘটতে পারে। প্রিম্যালিগন্যান্ট টিউমারগুলো সাধারণত আঁশযুক্ত ও পুরু ছোপযুক্ত হয়। উদাহরণস্বরূপ লিউকোপ্লাকিয়া, যা মুখের ক্যানসারের প্রাথমিক লক্ষণ হতে পারে। ম্যালিগন্যান্ট টিউমারগুলোর একটি অনিয়ন্ত্রিত বৃদ্ধির হার আছে। এগুলো এপিথেলিয়াল কোষে যেমন পেট, প্রোস্টেট, অগ্ন্যাশয়, ফুসফুস, লিভার, কোলন বা স্তন, হাড়, তরুণাস্থি, ডিম্বাশয়, অণ্ডকোষ, মস্তিষ্ক, পেট বা বুকে গঠিত হয়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen + 18 =