দইয়ের সঙ্গে মেলাবেন না কিছু জিনিস

গরমের মরশুমে দুপুরের খাবারের সঙ্গেই হোক বা যে কোনও সময় শরীরকে ঠাণ্ডা রাখতে অনেকেই দই  খান। দইয়ে আছে সোডিয়াম, পটাশিয়াম, ফাইবার, প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, আয়রন এবং ভিটামিন ডি-এর মতো অনেক পুষ্টিকর উপাদান। ফলে দই খেলে শরীরের উপকার হয়। কিন্তু সব কিছুর সঙ্গে কখনওই টক দই খাওয়া উচিত নয়। ভুল করেও দইয়ের সঙ্গে এইসব খাবার খেলে হতে পারে মারাত্মক। যার সঙ্গে দই কখওনই খাওয়া উচিত নয় সেগুলো হল,

দইয়ের সঙ্গে ঘি: ঘি চর্বি জাতীয় উপাদান। ঘি দিয়ে দই খেলে মেটাবলিজমের গতি কমে। ফলে শরীরে অলসতা বাড়ে। তাই দইয়ের সঙ্গে ঘি খাওয়া কখনই উচিত নয়।

দইয়ের সঙ্গে আম: গরমের মরশুমে দইয়ের পাশাপাশি আমও অত্যন্ত প্রিয় খাবার প্রায় সকলেরই। কিন্তু এই দুই খাদ্য একসঙ্গে খেলেই মুশকিল। এই গরমের সময়ে অনেকে ম্যাঙ্গো শেকে দই ব্যবহার করেন যা একদমই উচিত নয়। দইতে রয়েছে প্রাণীজ প্রোটিন যা যে কোনও ফলের সঙ্গে মিশে গেলে শরীরে বদহজম, অ্যাসিডিটির মতো নানান সমস্যা হতে পারে।

দইয়ের সঙ্গে সাইট্রাস জাতীয় ফল: টমেটো, তরমুজ, লেবু বা অন্যান্য টক ফলের সঙ্গে দই কখনই খাওয়া উচিত নয়। আয়ুর্বেদে এই দুটি খাবার একে অপরের বিপরীত বলে মনে করা হয়।

দইয়ের সঙ্গে দুধ: দুধের পর কখনওই দই খাওয়া উচিত নয়। খেলেই পেটে ব্যথার পাশাপাশি হজমের সমস্যাতেও পড়তে হবে।

দইয়ের সঙ্গে পেঁয়াজ: অনেকেই রায়তায় পেঁয়াজ কুচি দিয়ে থাকেন। কিন্তু এটা খাওয়া একেবারেই ঠিক নয়। পেঁয়াজ গরম প্রকৃতির আর দই হল ঠাণ্ডা প্রকৃতির। এই কারণে দুটি এক সঙ্গে খেলে মুখে ব্রণ, ত্বকের জ্বালা, বদহজম, অ্যাসিডিটি এবং অ্যালার্জির মতো সমস্যা হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − 13 =