অভিষেককে বিদ্ধ করলেও মমতার ক্ষেত্রে প্রশংসা বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের

সংঘর্ষে আহত দলীয় কর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাতের পর শুক্রবার এসএসকেএম হাসপাতালে দাঁড়িয়ে বিচার ব্যবস্থার একাংশকে তীব্র আক্রমণ করেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল নেতার মন্তব্য নিয়ে গোটা রাজ্যে যখন নিন্দার ঝড় উঠেছে, তখনই তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করতে দেখা গেল কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে। বিচারব্যবস্থা নিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্য নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া সোমবার দেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। আর অন্যাদিকে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে প্রশংসা শোনা গেল তাঁর গলায়। বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের মতে, তৃণমূল সুপ্রিমো অনেকবার আদালতে এসেছেন। তিনি কখনও বেফাঁস মন্তব্য করেন না।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার এসএসকেএম থেকে বিচার ব্যবস্থাকে কাঠগড়়ায় তুলে সাংবাদিকদের তিনি জানান, ‘এই হামলার ঘটনায় যারা যুক্ত, তাদের পুলিশ ধরতে পারছে না। কী করে পারবে? হাই কোর্ট তো মাফিয়া ও সমাজবিরোধীদের আশ্রয় দিচ্ছে। এত খুন হয়েছে হাইকোর্টের জন্য।’ প্রকাশ্যে তৃণমূল  সাংসদের এই মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করে স্পেশ্যাল বেঞ্চ গঠন করে স্বতঃস্ফূর্ত মামলা দায়ের করার অনুমতি দিক আদালত। এরপরই সোমবার হাইকোর্টে এমনই আবেদন করতে দেখা যায় আইনজীবী বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্যকে। এরপরই তাঁকে লিখিত অভিযোগ জানাতে বলেন প্রধান বিচারপতি। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় নাম না করে মন্তব্য করেন, ‘আমরা সেই সব রাজনৈতিক নেতাদের সম্মান করি না, যাঁরা আদালতের নামে ভুল কথা বলেন।’ একইসঙ্গে তাঁর সংযোজন,‘সুপ্রিমো এমন কথা বলেন না। তিনি অনেকবার আদালতে এসেছেন। তাঁকে দেখেছি, বিচারপতিদের সম্মান করেন। দায়িত্বশীল রাজনীতিবিদ।’

এই প্রসঙ্গে বলে রাখা শ্রেয়, এই প্রথম নয়, আগেও একাধিকবার বিচারব্যবস্থাকে নিশানা করেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। বিচারব্যবস্থার একাংশ ‘উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করেন’ বলেও মন্তব্য করতে শোনা যায় অভিষেককে। এক টেলিভিশন চ্যানেলের সাক্ষাতাকারে অভিষেকের মন্তব্য নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘উনি এই ধরনের কথা বলতে পারেন না। আদালত ও বিচারব্যবস্থার ক্ষমতা সম্পর্কে কোনও ধারণা নেই। এই মন্তব্যের জন্য জেল খাটতে হতে পারে। রাজনীতিকদের মুখে এই ধরনের কথা অপ্রত্যাশিত।’ তববে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়কে নানা ঘটনায় আগেও তৃণমূল সুপ্রিমোর প্রশংসা করতে শোনা গিয়েছিল। এদিনও তার রি-প্লে হলই বলা চলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − 11 =