শিক্ষক দিবসে অভিনব প্রতিবাদ ন্যাশনাল স্কিলস কোয়ালিফিকেশন ফ্রেমওয়ার্ক শিক্ষকদের

শিক্ষক দিবসের দিন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে এক অভিনব প্রতিবাদ করলেন ন্যাশনাল স্কিলস কোয়ালিফিকেশন ফ্রেমওয়ার্ক শিক্ষকরা।  মঙ্গলবার বেলা ১ টায় হাওড়া বাস স্ট্যান্ডে অভিনবভাবে প্রতিবাদে সামিল হন তাঁরা। বাটি হাতে ভিক্ষা থেকে ছাগল চরানোর ঘটনাকে সর্বসমক্ষে তুলে এনে বিদ্ধ করলেন রাজ্য সরকারকে। এরই পাশাপাশি এদিন তাঁদের একাংশকে বাসে উঠে ভিক্ষাও করতে দেখা যায়।

কারণ, তাঁদের দাবি, নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত ৭২৬ টি সরকার ও সরকার পোষিত উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বিভিন্ন হাতে কলমে শেখার বিষয়গুলি চলছে ২০১৩ সাল থেকে। যার মধ্যে পড়ে অটোমোটিভ, রিটেল, হেল্থ কেয়ার, ইনফরমেশন টেকনোলজি, বিউটি এণ্ড ওয়েলনেস, প্লাম্বিং , ইলেকট্রনিক্স, কনস্ট্রাকশনের মতো নানা বিষয়। ২০১৩ সাল থেকে এই বিষয়গুলি পড়ানো হলেও  শিক্ষক নিয়োগ হয়েছে প্রাইভেট এজেন্সির সূত্রে। যার ফলে শিক্ষকরা বহুকাল সময়মতো বেতন পা না। এনিয়ে বহু অভিযোগের পাশাপাশি আন্দোলন করলেও কাজের কাজ কিচ্ছু হয়নি। একইসঙ্গে শিক্ষকদের তরফ থেকে এ অভিযোগও তোলা হচ্ছে যে, যখন তখন এই সব প্রাইভেট এজেন্সি চাকুরি থেকে শিক্ষকদের ছাঁটাই করছে। এদিকে আবার ছাত্র ছাত্রীদের পাঠ্যপুস্তক মিলছে না, ল্যাব পরিকাঠামো ঠিকমতো গড়ে ওঠেনি।

এই প্রসঙ্গে এনএসকিউএফ শিক্ষক পরিবারের রাজ্য যুগ্ম সম্পাদক নির্মল মণ্ডল জানান, ‘ যাঁরা চাকরি করছেন তাঁদের অবিলম্বে প্রাইভেট এজেন্সির হাত থেকে সরিয়ে স্থায়ীকরণ করতে হবে। সঙ্গে বেতন কাঠামো ও বেতন বৃদ্ধি সহ ছাঁটাই হওয়া শিক্ষকদের বিদ্যালয়ে পুনর্বহাল করে শিক্ষকদের প্রাপ্য সম্মান ফিরিয়ে দিতে হবে। যে বঞ্চনা চলছে তার থেকে  অবিলম্বেমুক্তি দিক রাজ্যের মানবিক মুখ্যমন্ত্রী।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 3 =